প্যারাসাইসেলিং
প্যারাসাইসেলিং

কক্সবাজারে বেড়াতে আসা ভ্রমণ পিয়াসীদের রোমাঞ্চকর খেলা প্যারাসাইসেলিং

নিচে সমুদ্রের নীল পানি আর উপরে বিশাল আকাশের হাতছানি। এই দুয়ের মাঝে মেল বন্ধন জুড়ে দিয়েছে প্যারাসেলিং নামের রোমান্সকর খেলাটি। স্প্রীড বোটে প্যারাশুট বেধে তিন থেকে চারশ ফুট উপরে ভেসে বেড়ানোর খেলার নামই প্যারাসাইসেলিং

মন ভোলানো প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দিয়ে ভ্রমণপিপাসুদের বরাবরই আকর্ষণ করে থাকে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। তবে এখানে বেড়াতে আসা পর্যটকদের বাড়তি আনন্দের জন্য পর্যটন নগরী কক্সবাজারে যোগ হয়েছে নতুন আকর্ষণ প্যারাসেইলিং।

রোমাঞ্চকর এই খেলাটি বাংলাদেশে নতুন হলেও, অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দুঃসাহসিক এ খেলাটি বেশ জনপ্রিয় হলেও, বাংলাদেশে এ আয়োজন নতুন।

খোলা আকাশে ভেসে মেঘের সঙ্গে লুকোচুরি আর সমুদ্র ও পাহাড়ের নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগের সেই দুর্লভ অভিজ্ঞতার কথা জানান পর্যটকরা।
ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটকরা মনে করে যেন স্বর্গ থেকে নেমে আসলাম। আমার বিষয়টা সেরকম।
আরেক পর্যটক সালমা হক জানান, প্রায় আধ কিলোমিটার দুরে গিয়ে সমুদ্রের পানিটা টাস করা সুন্দর একটা জিনিস বাংলাদেশে হওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত।

তিনি আরও বলেন প্যারাসাইসেলিং খেলাটা বাংলাদেশের জন্য একদম নতুন। পর্যটকদের বিশেষ আকর্ষন হবে এই রাইডটি।
প্যারাসেইলিং এর পাশাপাশি সমুদ্র সৈকতকে ঘিরে আরো নতুন নতুন বিনোদন ব্যবস্থার পরিকল্পনার কথা জানান উদ্যোক্তারা। সেই সঙ্গে প্যারাসেইলিংয়ের জনপ্রিয়তা বাড়াতে পর্যাপ্ত সুবিধাসহ প্রশাসনের সহায়তা চান তারা।

এখানে শুধু প্যারাসেইলিং করলে চলবে না, যারা প্যারাসেইলর আছেন আর যারা আসতেছেন তাদের বসার জায়গার ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি অন্যান্য এমিউজম্যান্ট থাকলে তারা আনন্দ পাবে এবং প্যারাসেইলিংটা উপভোগ করতে পারবেন নিরাপত্তার সাথে। তিনি আরও জানান আগামী কিছুদিনের মধ্যে আমরা একটি ফ্লাইং বোর্ড আনবো। সেটা পর্যটকদের আশা করি বিনোধন মাধ্যম হবে।

২০১৪ সালে কলাতলী পয়েন্টে প্রথম প্যারাসেইলিং খেলার আয়োজন করা হয়। বর্তমানে দরিয়ানগর ও হিমছড়িতে এই রোমাঞ্চকর খেলাটির অভিজ্ঞতা নিতে পারবেন ভ্রমণ পিয়াসীরা।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*