লইট্টা শুঁটকি কষা
লইট্টা শুঁটকি কষা

রেসিপি: লইট্টা শুঁটকি কষা

কড়াইয়ে পড়লে গন্ধে পাড়া ছাড়া হতে হয়, কিন্তু পাতে পড়লে শুধু হাপুস-হুপুস শব্দ ৷ শুঁটকি মাছ ব্যাপারটা এমনই ৷ কথায় বলে বাঙাল বাড়িতে শুঁটকি মাছ ছাড়া রান্না কিসের? কিন্তু শুঁটকি মাছের স্বাদে অনেক ঘটি বাঙালিকেও মজতে দেখা গিয়েছে ৷ আর যারা আজও এ স্বাদে বঞ্চিত তাদের জন্য রইল এই রেসিপি ৷ দেখে নিন কীভাবে রাঁধবেন- লইট্টা শুঁটকি কষা

উপকরণ:

লইট্টা শুঁটকি- ২০০ গ্রাম

পেঁয়াজ কুচি- ৪ কাপ

রসুন- দেড় কাপ (মোটা করে কুচোনো)

টমেটো বাটা- ১ কাপ

হলুদ গুঁড়ো- ১ চা-চামচ

লাল লঙ্কা গুঁড়া- ২ চা-চামচ

আদা বাটা- ১ চা-চামচ

রসুন বাটা ১ চা-চামচ

নুন- স্বাদ অনুযায়ী

চিনি- দেড় চা-চামচ

কালো মরিচ গুঁড়ো- ২ চা-চামচ

তেল ১ কাপ

প্রণালী: প্রথমে শুঁটকি মাছকে গরম জলে ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপর ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে মাছগুলো তিন থেকে চারটে টুকরো করে নিন ৷ তারপর আরো একবার গরম জলে ভাল করে ধুয়ে নিয়ে জল ঝরিয়ে মাছগুলো সামান্য থেঁতো করে নিন, যাতে মাঝের মোটা কাঁটাটা বেরিয়ে আসে ৷ কাঁটাগুলো ফেলে দিয়ে মাছটি সরিয়ে রাখুন ৷

এবার গ্যাসে কড়া বসিয়ে তাতে সামান্য তেল দিয়ে গরম করুন ৷ তেল গরম হলে তাতে ২ কাপ কুচোনো পেঁয়াজ ও সামান্য নুন দিয়ে ভাজতে থাকুন ৷ পেঁয়াজগুলো মজে এলে বাকি পেঁয়াজ দিয়ে আরও কিছুক্ষণ ভেজে চিনি, টমেটো বাটা, রসুন বাটা এবং লাল লঙ্কা গুঁড়া দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। তেল বেরিয়ে এলে সামান্য জল ও নুন দিয়ে নাড়তে থাকুন ৷

এবার মরিচ ও রসুন কুচো বাদে অন্যান্য মশলা দিয়ে শুঁটকি মাছগুলো দিয়ে দিন ৷ এবার ভাল করে কষাতে থাকুন ৷ মশলা শুকিয়ে এলে তাতে সামান্য জল মেশাতে থাকুন যাতে নীচটা কড়ায় লেগে না যায় ৷ খানিক বাদে রসুন কুচি ও কালো মরিচ গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে নাড়িয়ে চাড়িয়ে একটু জল দিয়ে ঢাকা দিয়ে দিন ৷ ভাল করে ফুটে উঠলে পাঁচ-সাত মিনিট পর ঢাকা খুলে আঁচ কমিয়ে দিন ৷ জল মরে মাখা মাখা হয়ে এলে গ্যাস বন্ধ করে পাঁচ মিনিট ঢাকা দিয়ে রাখুন ৷ এরপর গরম গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন লইট্টা শুঁটকি কষা ৷ বাজি রেখে বলা যায় পাতে একটাও ভাতের দানা পড়ে থাকবে না ৷

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.